ভারতের ভাগ্য আর বিসমাহর হতাশা

ভারতের ভাগ্য আর বিসমাহর হতাশা

পাকিস্তান-ভারত সিরিজের পয়েন্ট ভাগাভাগি নিয়ে অধিনায়ক বিসমান মারুফ হতাশা প্রকাশ করেছেন। ভারত-পাকিস্তানের মধ্যকার নারী চ্যাম্পিয়নশিপের সিরিজ নিয়ে আলোচনা থামছেই না। নারী চ্যাম্পিয়নশিপের সিরিজটি বাতিল হওয়ায় দুই দলকে পয়েন্ট ভাগ করে দেয় আইসিসি। পয়েন্ট ভাগাভাগির গ্যাঁড়াকলে পড়ে সরাসরি বিশ্বকাপ খেলা হচ্ছে না পাকিস্তান নারী দলের। বাছাইপর্ব পার করতে হবে ২০২১ নারী ওয়ানডে বিশ্বকাপের টিকিট পেতে হলে। অন্যদিকে পয়েন্ট ভাগাভাগি হওয়ায় সুবিধা হলো ভারতের, সরাসরি বিশ্বকাপে খেলার সুযোগ পেয়েছে ভারতীয় নারী দল।

আইসিসির পয়েন্ট ভাগাভাগির সিদ্ধান্ত হতাশ করেছে পিসিবি চেয়ারম্যান এহসান মানিকে। এবার হতাশা প্রকাশ করেছেন পাকিস্তান নারী দলের অধিনায়ক বিসমাহ মারুফ, ‌’সিদ্ধান্তটা খুবই হতাশার। আমরা দীর্ঘদিন ধরেই ভারতের কাছে চিঠি লিখে এসেছি, এই সিরিজটি খেলার ব্যাপারে। আমাদের ক্রিকেট বোর্ডও কাজ করছিল। তবে ভারতের পক্ষ থেকে কোন উত্তর পাইনি। ভারতের ভাগ্য ভালো, কোন ম্যাচ না খেলেই পয়েন্ট পেয়েছে ওরা। এখন যদি ইতিবাচক দিক থেকে দেখি, তাহলে আমাদের জন্য ভালোই হয়েছে। আমরা কিছু প্রতিযোগিতাপূর্ণ ম্যাচ খেলে বিশ্বকাপে যাব।’

২০১৯ সালে দুই প্রতিবেশী দেশের মধ্যে দ্বিপাক্ষিক সিরিজটি হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু দুই দেশের রাজনৈতিক সমস্যার কারণে সিরিজটি মাঠে গড়ায়নি। ২০১৬ সালেও দুই দলের মধ্যকার দ্বিপাক্ষিক সিরিজ বাতিল হয়। তখন ভারত সিরিজ বাতিল হওয়ার পেছনে যৌক্তিক কারণ দেখাতে না পারায় পাকিস্তানকে পূর্ণ পয়েন্ট দেয় আইসিসি। এবার ভারতের কাছে যৌক্তিক কারণ থাকায় নাকি আইসিসি দুই দলের মধ্যে পয়েন্ট ভাগ করে দিয়েছে।

ভারতকে ক্রিকেটের সঙ্গে রাজনীতি মেশানো থেকে বিরত থাকার পরামর্শও দিয়েছেন পাকিস্তান নারী দলের অধিনায়ক, ‌’পাকিস্তান খেলার আগ্রহ দেখিয়েছে। পাকিস্তান খেলা থেকে সবসময় রাজনীতি দূরে রেখেছে। হতাশাজনক বলতেই হয়, পাকিস্তান সবসময় ম্যাচ খেলা থেকে বঞ্চিত থাকছে। আমরা ৪ নম্বর দল ছিলাম। সরাসরি বিশ্বকাপ খেলার মতো অবস্থানে ছিলাম। যদি আমরা ম্যাচগুলো ভারতের কাছে হারতাম, তারপর যদি আমাদের বাছাইপর্ব খেলতে হতো, তাহলেও মানা যেত।’

Leave a Reply